শিরোনাম :
লামাকাজীতে বাস-লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২ পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় ঔষধি গাছ রোপনের বিকল্প নেই-অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক সিলেটে বজ্রসহ বৃষ্টি অব্যাহত-আবহাওয়া অফিসের সর্তকতা বিশ্বায়নের যুগে কারিগরি শিক্ষার বিকল্প নেই: প্রতিমন্ত্রী শফিক চৌধুরী ঈদুল আযহা উপলক্ষে জাফলং পর্যটন কেন্দ্রের সার্বিক ব্যবস্থাপনা বিষয়ে বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত সিলেট নগরীতে তিনঘণ্টার বৃষ্টিতে ফের জলাবদ্ধতা এমসি কলেজে তাহিরপুর ছাত্রকল্যাণ পরিষদের কমিটি গঠন হবিগঞ্জে অটোরিকশাকে ট্রেনের ধাক্কা, নারী নিহত সিলেটে বিশ্ব শিশুশ্রম প্রতিরোধ দিবস পালন সিলেটে সংবাদ সম্মেলন-জন্মবধির ও মারাত্মক বধিরদের চিকিৎসায় আলোকবর্তিকা ‘কক্লিয়ার ইমপ্লান্ট’

বড়লেখার শাহবাজপুরে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের উৎসবে হামলায় নিহত ১, মূর্তি ভাংচুর,আহত ৮

রিপোর্টার নামঃ
  • শুক্রবার, ১০ জানুয়ারী, ২০২০
  • ২৪৯ বার পড়া হয়েছে

বড়লেখা প্রতিনিধি :: সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বার্ষিক উৎসব।সারা দেশের ন্যায় বড়লেখার শাহবাজপুরেও হিন্দুধর্মাবলম্বীরা এ উৎসবের আয়োজন করে। প্রতি বছরের ন্যায় এবারে এলাকায় উৎসবমুখর পরিবেশে উৎসবে যোগ দিতে এলাকার হিন্দু সম্প্রদায়ের মধ্যে আনন্দ উল্লাস বিরাজ করেছে। কিন্তু এলাকার মৌলবাদী খয়রুল ইসলামের নেতৃত্বে উৎসবে হামলা চালায়। সূত্রে জানা যায় মৌলভীবাজারের পড়ালেখা উপজেলার শাহবাজ পুরের রাজপুর গ্রামে গতকাল একটি মন্দিরে আক্রমণ করলে। এ সময় তাদের তাণ্ডবে ১ জন নিহত ও ৮ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। ঘটনার বিবরণে জানা যায় মৌলবাদী খয়রুল ইসলাম অতর্কিত হামলা চালায় রথযাত্রা অনুষ্ঠানে। এ সময় এলাকার এক মুসলিম পরিবারের সদস্য আব্দুল হাসিম (৫৯) সংঘর্ষের প্রতিবাদ করলে তাকে দেশীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। সংঘর্ষের সময় আরও ৭/৮ জন গুরুতর আহত হন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান রাজপুর গ্রামে শ্রীশ্রী কালাচান্দ মন্দিরে প্রতি বছরের নেয়ায় এবারও কৃষ্ণের পূষ্যাভিষেক উপলক্ষে এক ধর্মীয় অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। শান্তিপূর্ণ অনুষ্ঠানে গতকাল শুক্রবার বিকালে স্থানীয় মৌলানা খয়রুল ইসলাম ও তার সহযোগীরা ধর্মীয় স্লোগান দিয়ে মন্দিরে হামলা করে। স্থানীয় লোকজন সনাতন হিন্দু ধর্মালম্বীদের সাথে মিলিত হযে মৌলবাদীদের কে প্রতিহত করতে চাইলে উভয়ের মধ্যে এক রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। মৌলবাদীরা মন্দিরে প্রবেশ করে দেশীয় অস্ত্র শস্ত্র দিয়ে আক্রমণ করে মন্দিরে ভাংচুর অগ্নিসংযোগ ও মন্দিরে রক্ষিত মূর্তি ভাংচুর করে মূল্যবান জিনিসপত্র লুটপাট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় ১ জন নিহত ও পুরোহিত সহ ৮ জন লোক মারাত্মক আহত হয়। আহতদেরকে উদ্ধার করে বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আব্দুল হাসিম কে মৃত ঘোষণা করে অন্যান্য আহতরা হলেন পুরোহিত বিভুভূষন ভট্টাচার্য্য, বিলাল আহমদ, সজল রুদ্র পাল, মিনাল কান্তি আচার্য, জুয়েল আহমেদ, অপু দাস, রিমন, দীপক রুদ্র পাল। তাদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়। গুরুতর আহতদের মধ্যে বিলাল আহমদ কে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। বিলাল আহমদ রাজপুর গ্রামের এ সংঘর্ষে নিহত আব্দুল হাশিমের পুত্র। আশঙ্কাজনক মোঃ বিলাল আহমদের বাম হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলী মারাত্মক রক্তাক্ত জখম সহ চোখেও মারাত্মক আঘাতপ্রাপ্ত হন। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি

আরো সংবাদ পড়ুন
© All rights reserved © 2021 Anushondhan News
Developed by Host for Domain