শিরোনাম :
লামাকাজীতে বাস-লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২ পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় ঔষধি গাছ রোপনের বিকল্প নেই-অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক সিলেটে বজ্রসহ বৃষ্টি অব্যাহত-আবহাওয়া অফিসের সর্তকতা বিশ্বায়নের যুগে কারিগরি শিক্ষার বিকল্প নেই: প্রতিমন্ত্রী শফিক চৌধুরী ঈদুল আযহা উপলক্ষে জাফলং পর্যটন কেন্দ্রের সার্বিক ব্যবস্থাপনা বিষয়ে বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত সিলেট নগরীতে তিনঘণ্টার বৃষ্টিতে ফের জলাবদ্ধতা এমসি কলেজে তাহিরপুর ছাত্রকল্যাণ পরিষদের কমিটি গঠন হবিগঞ্জে অটোরিকশাকে ট্রেনের ধাক্কা, নারী নিহত সিলেটে বিশ্ব শিশুশ্রম প্রতিরোধ দিবস পালন সিলেটে সংবাদ সম্মেলন-জন্মবধির ও মারাত্মক বধিরদের চিকিৎসায় আলোকবর্তিকা ‘কক্লিয়ার ইমপ্লান্ট’

জগন্নাথপুরে বেহাল সড়ক, লাখো মানুষের দুর্ভোগ চরম

রিপোর্টার নামঃ
  • শুক্রবার, ১০ জুন, ২০২২
  • ১০৮ বার পড়া হয়েছে

নিউজ ডেস্ক :: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের ভবের বাজার-নয়াবন্দর ও সিলেটের গোয়ালাবাজারের এটি প্রধান সড়ক। জগন্নাথপুর উপজেলার কমপক্ষে ৩০টি গ্রামের লক্ষাধিক মানুষের এই সড়ক দিয়ে চলাচল করেন। কিন্তু সড়কটির বেহাল দশা দীর্ঘদিন থেকে। দ্রুত বেহাল সড়কটির সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

স্থানীয় সূত্র জানায়, জগন্নাথপুর উপজেলার বড় দুটি ইউনিয়নের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ভবেরবাজার-নয়াবন্দর ও গোয়ালাবাজার সড়ক। এই সড়ক দিয়ে কেবল ওই দুই ইউনিয়নের মানুষ নয় জগন্নাথপুর পৌরসভা এলাকাসহ জগন্নাথপুরের অন্যান্য এলাকার মানুষও যাতায়াত করেন। এ অবস্থায় এই সড়কে চলাচলকারী দুই ইউনিয়নের দাওড়াই, পাঠকুড়া, জামালপুর, তিলক, ষাড়পাড়া, মিলি, কালাম্ভরপুর, শুক্লাম্ভরপুরসহ কমপক্ষে ৪০টি গ্রামের মানুষ মহাবিপদে আছেন। না চলেছে যানবাহন, না পায়ে হেঁটে চলাচল করা যাচ্ছে।

সৈয়দপুর-শাহারপাড়া ইউনিয়নের সনাতনপুরের বাসিন্দা অ্যাডভোকেট জুয়েল মিয়া বলেন, লাখো মানুষের যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের লক্ষে ভবের বাজার নয়াবন্দর ও গোয়ালাবাজার সড়কের কাজ শুরু করা হয়। এখন এই সড়কের কাজ না হওয়ায় এলাকাবাসী চরম দুর্ভোগে আছেন। এই সড়কে কাজ না হলে আমাদের এলাকার জনসাধারণের চলাচলের সমস্যা হচ্ছে। দ্রুত সমাধান চাচ্ছি।

স্থানীয় বাসিন্দা ও ৭ নম্বর সৈয়দপুর শাহারপাড়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ এহছান আহমদ বলেন, গ্রামের ছোট ছোট রাস্তা দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে যানবাহন চলতে হচ্ছে। এখন সব রাস্তা চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। বৃষ্টি ও পানি কমে যাওয়ার পর জরুরি ভিত্তিতে রাস্তা মেরামতের দাবি জানাই।

৭ নম্বর সৈয়দপুর শাহাড়পাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল হাসান বলেন, পরিকল্পনা মন্ত্রীর প্রচেষ্টায় গুরুত্বপূর্ণ এই সড়কের কাজ শুরু হয়েছিল। এখন বৃষ্টি আর পানির জন্য কাজ বন্ধ আছে। পানি ও বৃষ্টি কমলে কাজ শুরু করার জন্য ঠিকাদারকে আমরা বলবো।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের জগন্নাথপুর উপজেলা কার্যালয়ের প্রকৌশলী সোহরাব হোসেন বলেন, কিছু সড়ক বেশি মাত্রায় ও কিছু সড়ক অল্প মাত্রায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এসব সড়কের ক্ষয়ক্ষতির তালিকা করা হচ্ছে।

আরো সংবাদ পড়ুন
© All rights reserved © 2021 Anushondhan News
Developed by Host for Domain