ইসির অগ্নিপরীক্ষা, দিন শেষে কে হচ্ছেন কুমিল্লার নগরপিতা?

রিপোর্টার নামঃ
  • বুধবার, ১৫ জুন, ২০২২
  • ১৩৬ বার পড়া হয়েছে

নিউজ ডেস্ক :: কে হচ্ছেন নগরপিতা এমন আলোচনা এখন কুমিল্লা নগরজুড়ে। ভোট সুষ্ঠু হবে কি না, ভোটাররা কেন্দ্রে যেতে পারবে কি না, সাধারণ মানুষের এমন সংশয়ের মধ্যেই কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে তৃতীয় দফায় অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচন।
বুধবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত নগরীর ২৭টি ওয়ার্ডের ১০৫টি কেন্দ্রেই ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে চলবে ভোট গ্রহণ।

 

নতুন নির্বাচন কমিশন (ইসি)র জন্য এ নির্বাচন একটি অগ্নিপরীক্ষা বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। তাই দেশের সাধারণ মানুষসহ রাজনৈতিক নেতাদের দৃষ্টি এখন এই নির্বাচনের দিকে। ফলে কুমিল্লা সিটি নির্বাচনকে অবাধ, সুষ্ঠ নিরপেক্ষ, গ্রহণযোগ্য ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করা ইসির জন্য একটি চ্যালেঞ্জ ও ইমেজ সৃষ্টির বিষয়ও বটে। এ অবস্থায় শান্তিপূর্ণ ভোটের পরিবেশ প্রত্যাশা করছেন কুমিল্লাবাসী।
এদিকে ভোটকে কেন্দ্র করে ভোটারসহ প্রার্থীদের মধ্যে উৎসাহ উদ্দীপনার কমতি নেই। জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী সব প্রার্থীই। তবে মেয়র হিসেবে যেই নির্বাচিত হোক না কেন নগরীর জলাবদ্ধতা, সন্ত্রাস, মাদক, যানজট অপরিকল্পিত আবাসন সমস্যার সমাধান করে কুমিল্লাকে একটি আধুনিক নগরী হিসেবে গড়ে তুলবেন এটাই সাধারণ ভোটারদের প্রত্যাশা।
নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা যায়, কুমিল্লা সিটি করপোরেশন ২৭টি ওয়ার্ডে বিভক্ত। এতে মোট ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ২৯ হাজার ৯২০। নারী ভোটার ১ লাখ ১৭ হাজার ৯২ এবং পুরুষ ভোটার ১ লাখ ১২ হাজার ৮২৬ জন। তৃতীয়লিঙ্গের ভোটার দুজন। মোট ১০৫টি ভোটকেন্দ্রের ৬৪০টি কক্ষে ভোট হবে। ভোট কেন্দ্রগুলোর মধ্যে ৮৯টি অতিঝুঁকিপূর্ণ, ৯টি ঝুঁকিপূর্ণ ও ৭টি সাধারণ কেন্দ্র হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।
এক নজরে কুমিল্লা সিটি নির্বাচন ২০২২
সময়: বুধবার (১৫ জুন) সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত একটানা চলবে ভোটগ্রহণ।
ভোটার: ২,২৯,৯২০ জন (পুরুষ ১,১২,৮২৬; নারী ১,১৭,০৯২ এবং হিজড়া ২)।
ওয়ার্ড: ২৭টি সাধারণ, ৯টি সংরক্ষিত।
ভোটকেন্দ্রে: ১০৫টি কেন্দ্রের ৬৪০টি ভোট কক্ষে হবে ভোটগ্রহণ।
প্রার্থী: মেয়র পদে ৫ জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১০৬ জন এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৩৬ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
মেয়র পদে প্রার্থী যারা:
এবারের নির্বাচনে মেয়র পদে লড়ছেন ৫ জন। তারা হলেন, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত (নৌকা), সদ্য সাবেক মেয়র ও বিএনপি থেকে বহিষ্কৃত স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মনিরুল হক সাক্কু (টেবিল ঘড়ি), স্বেচ্ছাসেবক দল থেকে বহিষ্কৃত স্বতন্ত্র প্রার্থী নিজাম উদ্দিন কায়সার (ঘোড়া), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী রাশেদুল ইসলাম (হাতপাখা) এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী কামরুল আহসান বাবুল (হরিণ)। এ ছাড়া সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৩৬ জন এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে নির্বাচন করছেন ১০৬ জন প্রার্থী।
হেভিওয়েট তিন প্রার্থীই জয়লাভের আশাবাদী। নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত, বিএনপি থেকে বহিষ্কৃত সাবেক মেয়র স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু, স্বতন্ত্র প্রার্থী নিজাম উদ্দিন কায়সার এতদিন ভোটের মাঠে একে অপরকে ঘাঁয়েল করার জন্য নানামুখি বাকযুদ্ধে লিপ্ত ছিলেন। নির্বাচনের শেষ মুহুর্তে এসে তারা তিনজনই ভোটযুদ্ধে জয়ী হবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
মেয়র প্রার্থীরা যেসব কেন্দ্রে ভোট দেবেন:
আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত ভোট দেবেন নগরীর রাণীর দিঘির পাড়স্থ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজিয়েট স্কুল কেন্দ্রে। দেয়াল ঘড়ি প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু ভোট দেবেন নগরীর উত্তর চর্থা এলাকার নবাব হোচ্ছাম হায়াদার উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে। ঘোড়া প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী নিজাম উদ্দিন কায়সার নগরীর রাণীর দিঘির পাড়স্থ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক শাখা কেন্দ্রে ভোট দেবেন। এছাড়া ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী রাশেদুল ইসলাম (হাতপাখা) এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী কামরুল আহসান বাবুল (হরিণ) নিজ নিজ এলাকার ভোট কেন্দ্রে ভোট দেবেন।
কেন্দ্রে কেন্দ্রে ইভিএম ও সরঞ্জামাদি প্রেরণ:
নবগঠিত নির্বাচন কমিশনের অধীনে অনুষ্ঠিত হচ্ছে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচন। এ নির্বাচনকে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে উদ্যোগ নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। মঙ্গলবার সকালে কুমিল্লা জিলা স্কুলের অডিটরিয়াম থেকে ইভিএম ও নির্বাচনী সরঞ্জামাদি নগরীর সংশ্লিষ্ট ভোট কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসারসহ কর্মকর্তাদের নিকট বুঝিয়ে দেন রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ের কর্মকর্তারা। প্রিজাইডিং অফিসাররা ইভিএম মেশিনসহ সরঞ্জামাদি বুঝে নিয়ে তা কেন্দ্রে নিয়ে যান। এ সব সরঞ্জামাদি কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে প্রতিটি কেন্দ্রে প্রেরণ করা হয়।
ইভিএমে ভোট গ্রহণ:
কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের প্রথম নির্বাচন ব্যালটে ও দ্বিতীয় নির্বাচন আংশিক কেন্দ্র ইভিএমের মাধ্যমে হলেও এবার ১০৫টি কেন্দ্রের সবকয়টিতে ইভিএমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। সুষ্ঠু ভোটগ্রহণ ও ইভিএম পদ্ধতির সঙ্গে ভোটারদের সম্যক ধারণা প্রদানের জন্য গত সোমবার সকল ভোট কেন্দ্রে মক ভোটিং অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া জেলা প্রশাসন ও নির্বাচন কমিশনের উদ্যোগে প্রিজাইডিং অফিসারসহ নির্বাচন সংশ্লিষ্টদের একদিনব্যাপী প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে।
নিরাপত্তার চাদরে নগরী:
বুধবার নগরীর ১০৫টি কেন্দ্রে সুষ্ঠুভাবে ভোট গ্রহণের জন্য সোমবার থেকে নগরীতে পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবিসহ আইনশৃংখলা বাহিনীর ৪ হাজার ৪১০ জন সদস্যকে মোতায়েন করা হয়েছে। এদের মধ্যে ২২৯টি টিমে পুলিশ সদস্য ২ হাজার ৪৬০ জন, ১২ প্লাটুন বিজিবির ২৪০ জন সদস্য, র‌্যাবের ৪০টি টিমে ৪শ জন, ১০৫টি কেন্দ্রে ১ হাজার ২৬০ জন আনসার দায়িত্ব পালন করবেন বলে পুলিশ সূত্র জানিয়েছে।
স্ট্রাইকিং ফোর্স ও ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার জন্য ৫০ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাঠে থাকবেন। এছাড়া থাকবে ৭৫টি চেকপোস্ট। পুলিশসহ আইনশৃঙখলা বাহিনীর কর্মকর্তাদের পাশাপাশি মাঠ তদারকিতে নিয়োজিত থাকবেন ৬ জন এডিসি ও স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক।

কুমিল্লার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান বলেন, অবাধ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠানে ইসির নির্দেশনা অনুযায়ী সকল প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। ভোট হবে শংঙ্কামুক্ত ও উৎসব মুখর পরিবেশে। এতে কেউ কোন ধরণের বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে ভোটের মাঠে এতদিন ধরে বিরাজমান সুন্দর পরিবেশ নষ্ট করার কোনও সুযোগ নেই।
যেখান থেকে ফলাফল :

নির্বাচন শেষ হওয়ার পর পরই ফলাফল ঘোষণার প্রস্তুতি চূড়ান্ত হয়েছে। নগরীর জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে খোলা হয়েছে কন্ট্রোল রুম। এখান থেকে বেসরকারিভাবে নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণা করবেন রিটার্নিং অফিসার মো. শাহেদুন্নবী চৌধুরী।
সিটি করপোরেশনের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস:
প্রায় ৬০ লাখ জনসংখ্যা অধ্যুষিত দেশের রাজধানী ঢাকা ও বন্দর নগরী চট্টগ্রামের মাঝামাঝি পয়েন্টে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের পাদদেশে গোমতী নদীর কোলঘেষে অবস্থিত শিক্ষা-সংস্কৃতির পাদপীঠ খ্যাত দেশের প্রাচীন জেলা কুমিল্লা। প্রায় দেড়শ বছর পূর্বে এ জেলায় গড়ে তোলা হয়েছিল কুমিল্লা পৌরসভা।
কালের বিবর্তনে কুমিল্লা পৌরসভাকে ২০১১ সালে সিটি করপোরেশনে উন্নীত করা হয়। বর্তমানে এ সিটি করপোরেশনের আয়তন ৫৩.৪ বর্গকিলোমিটার। ইতোপূর্বে ২০১২ সালে ও ২০১৭ সালে এ সিটিতে দুটি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই দুটি নির্বাচনে জয় পান বিএনপি দলীয় প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু। তিনি এবার স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে লড়ছেন।

আরো সংবাদ পড়ুন
© All rights reserved © 2021 Anushondhan News
Developed by Host for Domain