সিলেটে প্রথম দিনে চালকের আসনে নিউজিল্যান্ডের

রিপোর্টার নামঃ
  • মঙ্গলবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২৩
  • ৪৩ বার পড়া হয়েছে

নিউজ ডেস্ক :: ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দুই টেস্ট সিরিজের প্রথমটিতে আজ মাঠে নামে বাংলাদেশ। সিলেটে কিউইদের বিপক্ষে আজ টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন টাইগার অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত। ইনিংসের শুরুতেই দুই ওপেনার মিলে ভালো শুরুই এনে দিয়েছিলেন। প্রথম দুই সেশনে দাপটের সঙ্গে খেললেও তৃতীয় সেশনে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে স্বাগতিকরা। উইকেটে থিতু হয়েও সেঞ্চুরির আক্ষেপ নিয়ে ৮৬ রানে মাঠ ছাড়েন ওপেনার মাহমুদুল হাসান জয়। শেষ বিকেলে কিউই স্পিনারদের ঘূর্ণিতে উইকেট বিলিয়ে দিয়ে ১ উইকেট হাতে রেখে ৩১০ রান তুলে প্রথম দিনের খেলা শেষ করে বাংলাদেশ।

 

টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই নিউজিল্যান্ডের বোলারদের দেখেশুনে খেলছিলেন দুই ব্যাটার। দীর্ঘদিন পর টেস্ট খেলতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতে বড় কিছুর আভাসই যেন দিচ্ছিলেন তারা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বড় হয়নি টাইগারদের উদ্বোধনী জুটি। একপ্রান্তে জয় স্বাচ্ছন্দ্যে খেললেও অপরপ্রান্তে কিছুটা অস্বস্তিতেই ছিলেন জাকির। উইকেটে থিতু হয়েও ফিরতে হয়েছে তাকে।

এরপর এজাজ প্যাটেলের বলে ছয় মেরে রানের খাতা খোলার পর একই ওভারে একটি চারও হাঁকান শান্ত। টাইগার অধিনায়ক আজ যতক্ষণ মাঠে ছিলেন ওয়ানডে মেজাজেই খেলেছেন। তবে পঁচিশতম ওভারে গ্লেন ফিলিপসের ফুলটস বলে ছয় মারতে গিয়ে উইলিয়ামসনের মুঠোবন্দী হয়ে সাজঘরে ফিরতে হয় তাকে। আউট হওয়ার আগে ৩৫ বল খেলে ৩ ছয় আর ২ চারে ৩৭ রান করেন তিনি।

শান্তকে হারানোর আক্ষেপ নিয়েই মধ্যাহ্নবিরতিতে যায় বাংলাদেশ। এদিকে কিউইদের বিপক্ষে আজ দুর্দান্ত খেলেছেন আরেক ওপেনার জয়। শুরু থেকেই আজ টিম সাউদি, এজাজ পাটেলদের ভালোই সামলিছেন তিনি। প্রথম সেশন শেষে তুলে নিয়েছেন নিজের ফিফটিও। জয়ের সঙ্গে তৃতীয় উইকেটে সফল এক জুটি গড়েছিলেন সাদা পশাকের সাবেক অধিনায়ক মমিনুল।

এ দুজনের ব্যাটেই বড় সংগ্রহের দিকে এগোচ্ছিল বাংলাদেশ। তবে দলীয় ১৮০ রানে গ্লেন ফিলিপ্সের বলে কট বিহাইন্ড হয়ে সাজঘরে ফিরতে হয় মমিনুলকে। আউট হওয়ার আগে ৭৮ বল খেলে তিনি করেছেন ৩৭ রান। ওদিকে দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ফিফটি তুলে নেয়ার পর ক্যারিয়ারে নিজের দ্বিতীয় শতকের দিকে এগোচ্ছিলেন জয়। কিন্তু মমিনুল ফেরার পরের ওভারেই ফিরেছেন তিনিও।

ইশ সোধির বলে স্লিপে ড্যারিল মিচেলের মুঠোবন্দী হয়ে সাজঘরে ফিরতে হয় তাকে। আউট হওয়ার আগে ১৬৬ বল খেলে ১১ টি চারে করেছেন ৮৬ রান। এদিকে এ দুজনের বিদায়ে দ্বিতীয় সেশন শেষে পিছিয়ে পড়ে বাংলাদেশ।

দ্রুত দুই উইকেট হারিয়ে কিছুটা নড়বড়ে অবস্থানে থেকেই চা বিরতির পর শুরু করেছিল স্বাগতিকরা। মুশফিকুর রহিম ও অভিষিক্ত শাহাদাত হোসেন দীপুর ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টায় দলীয় দুইশ পূর্ণ হয় বাংলাদেশের। তবে এরপরই আবারও ধাক্কা। এবার আঘাত হানলেন এজাজ প্যাটেল। তার অফ স্টাম্পের বাইরের বল ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে মারতে গিয়েছিলেন মুশফিক। ধরা পড়ে যান মিড অফে দাঁড়ানো উইলিয়ামসনের হাতে। ২২ বলে ১২ রান করেন মুশফিক।

মুশফিকের পর অভিষিক্ত দিপুকে নিয়ে ইনিংস মেরামতের চেষ্টায় ছিলেন মিরাজ। শেষ পর্যন্ত কাইল জেমিসনের শর্ট বলের এক ডেলিভারিতে আর নিয়ন্ত্রণ ধরে রাখতে পারলেন না টাইগার এই অলরাউন্ডার। ব্যাটের কানায় লেগে বল চলে যায় স্লিপে। ৩০ বলে ২০ রান করেছেন মিরাজ।

আরো সংবাদ পড়ুন
© All rights reserved © 2021 Anushondhan News
Developed by Host for Domain